• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১১ জুন, ২০২০
সর্বশেষ আপডেট : ১১ জুন, ২০২০

চুরি করে সরকারি ওষুধ বিক্রির সময় ধরা ৩

অনলাইন ডেস্ক

করোনাকালে বেসরকারি হাসপাতালগুলো অনেকটা ফাঁকা। সরকারি হাসপাতালেও কোথাও কোথাও করোনা ছাড়া অন্য রোগীদের চিকিৎসা অনেকটা কম। এই সুযোগে সরকারি হাসপাতালের অসাধু স্টাফরা মেতে উঠেছেন সরকারি ওষুধ চুরিতে।

মঙ্গলবার ও বুধবার ঢাকার দুটি বড় হাসপাতালে তিনজন স্টাফ সরকারি ওষুধ চুরি করতে গিয়ে ধরা খেয়েছেন। জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) লোকজন তাদের হাতেনাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

বুধবার শেরেবাংলা নগর থানার জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে সরকারি ওষুধ বিক্রির সময় হাতেনাতে দুজনকে আটক করেছে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই)। আটককৃতরা হলেন- হাসপাতালটির ফার্মাসিস্ট নির্মল সরকার ও স্টোর ইনচার্জ বশির উদ্দিন আহমেদ। দুপুরে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয। এ সময় তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন দামি ইনজেকশন জব্দ করা হয়েছে। যেগুলোর দাম প্রায় দেড় লাখ টাকা।

আর মঙ্গলবারের ঘটনাটি ঘটেছে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট। হাসপাতালটির বহির্বিভাগের ইনচার্জ সিনিয়র স্টাফ নার্স তপন কুমার বিশ্বাসকেও একই কায়দায় সরকারি ওষুধ চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় ধরা হয়। তার কাছ থেকে তিন ধরনের ইনজেকশন জব্দ করা হয়। যার বাজার মূল্য আনুমানিক ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা।

জানা গেছে, অভিযোগ ছিল একটি চক্র দীর্ঘদিন ধরেই জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের অবৈধভাবে সরকারি ওষুধ বিক্রি করে। বুধবার দুপুরে গোপনে হাসপাতালটিতে অবস্থান নেয় এনএসআইর একটি দল। একপর্যায়ে ওষুধ বিক্রির সময় সরকারি দেড় লাখ টাকার ওষুধসহ ফার্মাসিস্ট নির্মল সরকারকে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে তার সহযোগী স্টোর ইনচার্জ বশির উদ্দিন আহমেদকেও আটক করা হয়।

এসময় তাদের কাছ থেকে ২০০ পিস ক্লাক্সো ৬০ ইনজেকশন, ৩০ বক্স ক্লন্ট ৭৫ ওষুধ জব্দ করা হয়েছে। যার বাজারমূল্য মূল্য আনুমানিক দেড় লাখ টাকা। তবে, সেইসব ওষুধ মাত্র ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করা হচ্ছিল।

শেরেবাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানে আলম মুন্সি জানিয়েছেন আটককৃতদের থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আর শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউনের চুরির বিষয়টি সম্পর্কে জানা গেছে, এখানকার সিনিয়র স্টাফ নার্স তপন কুমার বিশ্বাস ইনস্টিটিউট থেকে ব্যাগে ভরে ওষুধ নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হল সংলগ্ন রাস্তা থেকে ওষুধসহ তাকে আটক করা হয়। পরে তাকেও পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন