• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৬ আগস্ট, ২০২০
সর্বশেষ আপডেট : ১৬ আগস্ট, ২০২০

ইসরাইলের সঙ্গে চুক্তি আমিরাতের বড় ভুল: রুহানি

অনলাইন ডেস্ক

ডেস্ক রিপোর্ট : অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণে চুক্তির মাধ্যমে সংযুক্ত আরব আমিরাত বিশাল ভুল করেছে বলে মন্তব্য করেছেন ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

আমিরাতের পদক্ষেপে ক্ষোভ প্রকাশ করে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে উপসাগরীয় দেশটির বিশ্বাসঘাতকতার নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

ইরানি পত্রিকা কায়হান বলছে, দখলদারদের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্কের মাধ্যমে আরব আমিরাত নিজেকে বৈধ প্রতিরোধের লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার ইসরাইল-আমিরাতের মধ্যে চুক্তির বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই চুক্তির মধ্যস্থতা করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

আঞ্চলিক শক্তি ইরানের বিরুদ্ধে সমর্থন বাড়াতেই এমন উদ্যোগ বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের।

টেলিভিশনে দেয়া বক্তৃতায় এ অঞ্চলে শক্ত অবস্থান নিয়ে ইসরাইলকে চেপে বসতে সুযোগ দেয়ার বিরুদ্ধে আরব আমিরাতকে সতর্ক করেন রুহানি।

তিনি বলেন, তাদের (আমিরাত) সতর্ক হওয়া ভালো। ইতিমধ্যে তারা বিশাল ভুল করেছে। বিশ্বাসঘাতকতাপূর্ণ কাজ করেছে। আমার প্রত্যাশা, তারা বুঝতে পারবেন এবং ভুল পথ পরিত্যাগ করবেন।

প্রথম পাতায় করা মন্তব্যে দৈনিক কায়হান জানায়, ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে আরব আমিরাত মারাত্মক বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। যার মধ্য দিয়ে ছোট্ট তেলসমৃদ্ধ দেশটি নিজেকে প্রতিরোধের বৈধ ও সহজ লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করেছে।

রুহানি বলেন, নভেম্বরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের আরেক দফা বিজয় নিশ্চিত করতে এই চুক্তি করা হয়েছে। যে কারণে ওয়াশিংটন থেকে এই চুক্তির কথা ঘোষণা করা হয়।

এখন কেন ঘোষণাটি এসেছে প্রশ্ন রেখে ইরানি প্রেসিডেন্ট বলেন, যদি এটি কোনো ভুল চুক্তি না হতো, তাহলে তৃতীয় আরেকটি দেশে বসে কেন ঘোষণাটি দেয়া হয়েছে? আমেরিকায় একজন যাতে নির্বাচনে জয়ী হতে পারেন, তা নিশ্চিত করতে আমিরাত তাদের দেশের লোকজন, মুসলমান ও আরব বিশ্বের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে।

আরও পড়ুন

  • এক্সক্লুসিভ এর আরও খবর