• ঢাকা
  • শনিবার, ৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৮ আগস্ট, ২০২০
সর্বশেষ আপডেট : ১৮ আগস্ট, ২০২০

বন্যার প্রভাব শাক-সবজির বাজারে

অনলাইন ডেস্ক

দীর্ঘদিন ধরেই ঢাকার বাজারে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের শাক-সবজি; বন্যা দীর্ঘায়িত হওয়ার ফলেই এমনটা হয়েছে বলে খুচরা ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।

সোমবার ঢাকার খুচরা ও পাইকারি বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি ৬০ টাকার নিচে তেমন কোনো সবজি নেই। কিছু কিছু সবজি বিক্রি হচ্ছে সর্বোচ্চ ৮০ টাকায়। আর কাঁচা মরিচের কেজি ১০০ টাকার উপরে।

নতুন করে এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে চালের বাড়তি দাম। ঈদের পরে কেজিতে অন্তত দুই টাকা করে বেড়েছে সরু ও মোটা চালের দাম।

দুপুরে রাজধানীর মিরপুর বড়বাগ কাঁচাবাজারে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিটি মাঝারি আকারের লাউ বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। এক কেজি বেগুন ৭০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, করলা ৭০ টাকা, পটল ৬০ টাকা, ঢেড়শ ৬০ টাকা, বরবটি ৭০ টাকা, কাঁচা মরিচ ১২০ টাকা ও টমেটো ১২০ টাকা করে প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে। কাচা কলা পাওয়া যাচ্ছে প্রতি হালি ৩০ টাকায়।

সবজি বিক্রেতা কবির হোসেন জানান, গত মাসে বন্যা শুরু হওয়ার পর থেকেই শাক-সবজির দাম বাড়তি। প্রায় এক মাস ধরে দাম এভাবে ঘুরাফেরা করছে। কোনো কোনো দিন কেজিতে ১০ টাকা এদিক সেদিক হচ্ছে।

দেশের একটি বড় অঞ্চল বন্যায় প্লাবিত হয়ে সবজি ক্ষেত নষ্ট হয়েছে, যার ফলে বাড়তি দামে কাঁচাবাজার করতে হচ্ছে।দেশের একটি বড় অঞ্চল বন্যায় প্লাবিত হয়ে সবজি ক্ষেত নষ্ট হয়েছে, যার ফলে বাড়তি দামে কাঁচাবাজার করতে হচ্ছে।

আমদানিকারকরা বলেন, ঢাকার আশপাশের জেলাগুলো থেকে আগে সবজির সরবরাহ ছিল। কিন্তু বন্যার কারণে এসব এলাকার সবজি এখন তেমন আসছে না। মাগুরা, মেহেরপুর, যশোরসহ অন্যান্য উঁচু এলাকা যেখানে বন্যার পানি উঠেনি, ওই সব এলাকা থেকে এখন সবজি আসছে ঢাকায়। সরবরাহ কমে যাওয়া ও পরিবহন খরচ বেশি পড়ায় দীর্ঘদিন ধরে মালের দাম বাড়তি।

আরও পড়ুন