• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৭ অক্টোবর, ২০২০
সর্বশেষ আপডেট : ২৭ অক্টোবর, ২০২০

ফ্রান্সে কিছুক্ষণের মধ্যেই বড় হামলার ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করায় বিশ্বজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে ফ্রান্স। সমালোচনা ছাড়াও দেশটির পণ্য বয়কটের হিড়িক পড়েছে। একই সঙ্গে ফ্রান্সের ইন্টারনেট অঙ্গনে সাইবার হামলাও চালাচ্ছে বিভিন্ন দেশের হ্যাকাররা।

এই হামলার মধ্যে দেশটির বেশ কয়েকটি সাইটে প্রথম হামলা করে বাংলাদেশের সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা সংগঠন ‘সাইবার-৭১’ এর সদস্য। পরে তাদের সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হ্যাকাররাও যুক্ত হয়েছেন।

ক্রমাগত হ্যাকারদের আক্রমণে বিপর্যস্ত ফ্রান্সের বিভিন্ন ওয়েবসাইট। ফলে বাধ্য হয়ে দেশটি জরুরি ‘সাইবার সিকিউরিটি অ্যালার্ট’ জারি করেছে।

রোববার (২৫ অক্টোবর) টুইট করে এ জরুরি সতর্কতা জারি করে ফ্রান্সের সরকারি সাইবার ডিপার্টমেন্ট। গত শনিবার (২৪ অক্টোবর) মধ্যরাতের পর থেকে ফ্রান্সে সাইবার হামলা চালানো হয় বলে সাইবার ৭১ কমিউনিটির কয়েকজন সদস্য সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

এবার মঙ্গলবার আরও বড় সাইবার হামলার ঘোষণা দিয়েছে সাইবার-৭১। বিকেলে ফেসবুকে তাদের অফিসিয়াল পেজে এ ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

ফ্রান্সের বিরুদ্ধে এ পদক্ষেপের নাম দেয়া হয়েছে ‘অপারেশন ফ্রান্স’ (ওপিএফআর)। সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে এই নামে একটি গ্রুপও খোলা হয়েছে। সেখানে ইতিমধ্যে ৭২ হাজার মানুষ সাড়া দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) হামলার বিষয়ে সাইবার-৭১ এর পেজে এক পোস্টে বলা হয়েছে, ‘রাসুল (সা.) কে উদ্দেশ্য করে ব্যঙ্গচিত্র যে প্রকাশ করেছে সেই পত্রিকাই আজকে আমাদের টার্গেট।’

হামলায় অংশ নিচ্ছেন (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) এমন একজন সাইবার বিশেষজ্ঞের সঙ্গে সময় নিউজের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ‘শার্লি এবদের সাইটে হামলা করার মতো সাহস এখনও কেউ দেখায়নি। ফ্রান্স সরকার তাদের সাইবার নিরাপত্তা দিয়ে থাকে। আমরা অন্তত ১০ হাজার হ্যাকার একত্রে হামলা করতে যাচ্ছি। আসা করছি আমরা সফল হবো।’

সাইবার-৭১ এর পোস্টটি পাঠকের জন্য তুলে ধরা হল:

‘একটা কথা শুনেছিলাম, সেটাই আজকে আপনাদেরকে বলবো। হযরত ইব্রাহিম (আ.)কে যখন আগুনে পোড়ানোর জন্য নিক্ষেপ করা হলো তখন এক ব্যাঙ সেই আগুনে প্রস্রাব করে দিল।

ব্যাঙকে জিজ্ঞেস করা হলো, তুমি এই আগুনে প্রস্রাব কেন করলা? ব্যাঙ বলল, হয়তো আমার প্রস্রাব এই আগুন নিভবে না; কিন্তু আমি যতটুকু পেরেছি তাই-ই করেছি প্রতিবাদ হিসেবে।

প্রিয় সহযোদ্ধারা, আজকে আমরা এমন একটা টার্গেট নিয়েছি, যেটা এখনও পর্যন্ত কেউ হাত দেওয়ারও সাহস করে নি। ধারণা করা হয়ে থাকে, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এর সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়ে থাকে। আমি নিশ্চিতভাবেই জানি, যদি আমরা ১০ হাজারের কম একত্রে অ্যাটাক দেই, তাহলে হয়তো সাইটটি কোনোভাবেই ডাউন করতে পারবো না।

তাই, আজকে আমাদের প্রচুর অ্যাক্টিভ মেম্বার প্রয়োজন যারা রাসুল (সা.) কে নিয়ে যেই পত্রিকা ব্যঙ্গচিত্র করেছে সেই পত্রিকার ওপর আক্রমণের জন্য। দায়িত্ব নিজেই নিন, আপনার ৫ জন বন্ধু যার বাসায় কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট সংযোগ আছে তাকে বলুন আমাদের গ্রুপের কথা। প্রয়োজনে ফোন করুন, তবুও অন্ততপক্ষে ৫ জন বন্ধুকে নিয়ে অংশ নিন আমাদের আজকের এই ইভেন্টে।

ইনশাআল্লাহ আমরা সফল হবো।”

আরও পড়ুন

  • এক্সক্লুসিভ এর আরও খবর