• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১ নভেম্বর, ২০২০
সর্বশেষ আপডেট : ১ নভেম্বর, ২০২০

মত প্রকাশের স্বাধীনতার নামে অবমাননা সমর্থনযোগ্য নয় : ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর অবমাননায় নিন্দা জানিয়ে এ ব্যাপারে মুসলিম উম্মাসহ সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছে বিএনপি। আজ দুপুরে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।

তিনি বলেন, পবিত্র ধর্ম ইসলাম এবং মহানবী মুহাম্মদ (সা.) এর অবমাননা ও তার পক্ষে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের অবস্থানকে কেন্দ্র করে সারা বিশ্বের ২০০ কোটিরও বেশি মুসলমানসহ সকল ধর্ম-বর্ণের কোটি কোটি যুক্তিবাদী ধর্মপ্রাণ মানুষ এবং বিভিন্ন রাষ্ট্র যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে চলেছে- বিএনপি তার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করছে।

এসময় বিএনপির এই মহাসচিব আরও জানান, গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে জাতীয় স্থায়ী কমিটির এক ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত। সেখানেই এই একাত্মতার সিদ্ধান্ত হয় বলে জানান তিনি। আজকের সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব ছাড়াও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।
সকল ধর্মের মানুষের ধর্মবিশ্বাসের প্রতি শ্রদ্ধাশীল বিএনপি মনে করে, মত প্রকাশের স্বাধীনতার নামে কোনো ধর্মনেতার অবমাননা কোনোভাবেই সমর্থনযোগ্য হতে পারে না। রাসুল (সা.) এর অবমাননাকে বিএনপি তাই একটি গর্হিত অপরাধ বলে গণ্য করে এবং তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে বলেও এসময় ফখরুল উল্লেখ করেন।

বিএনপি মহাসচিব স্পষ্ট ভাষায় বলেন, ধর্মীয় সহিষ্ণুতায় বিশ্বাসী বিএনপি মনে করে- মহানবী (সা.) এর অবমাননা ও তা সমর্থন করা যেমন ধর্মবিদ্বেষকে উস্কিয়ে দেয়ার মতো অপরাধ তেমনি প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে মানুষ হত্যাও গ্রহনযোগ্য নয়। বিশ্বের শান্তি প্রতিষ্ঠার মহান ব্রত নিয়ে যিনি মানবতার ধর্ম ইসলাম প্রচার করেছেন- সেই মহানবী (সা.) এর দীক্ষাই হোক আমাদের নির্দেশক।

ফখরুল বলেন, পবিত্র ইসলাম ও মহানবী (সা.) এর অনুসারীদের আবেগকে আহত করে বিশ্বব্যাপী যে অনাকাঙ্ক্ষীত পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়েছে তা গোটা মানবজাতির ঐক্য ও মিলনের জন্য এক অনতিক্রমনীয় হুমকিতে পরিণত হয়েছে। এই সংকট থেকে বেরিয়ে আসার এবং ধর্মীয় স্বাধীনতা ও মূল্যবোধকে স্বীকৃতি দেয়ার মত মানবিক ও গণতান্ত্রিক দায়িত্ব পালনের জন্য ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে উদ্যোগী হতে হবে। কারণ ঘৃণা ও সন্ত্রাস- কোনটাই বিশ্ববাসীর কাম্য নয়।

আরও পড়ুন

  • এক্সক্লুসিভ এর আরও খবর