• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২ নভেম্বর, ২০২০
সর্বশেষ আপডেট : ২ নভেম্বর, ২০২০

স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইনে একক কর্তৃত্ব পাবে সরকারি দল: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

অসৎ উদ্দেশ্যে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান নির্বাচন আইন করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (২ নভেম্বর) বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রস্তাবিত এই আইন নিয়ে দলের অবস্থান ও মতামত তুলে ধরেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারি দলকে একক কর্তৃত্ব প্রদানের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনকে ‘ঠুঁটো জগন্নাথ’ বানানোর উদ্দেশে এই আইন করা হচ্ছে। উপনির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহ ও পরিবেশনে গণমাধ্যমের আগ্রহ না থাকায় অনিয়মের ঘটনা বেশি ঘটছে বলেও মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

পরে প্রস্তাবিত স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন নিয়ে দলীয় মহাসচিব স্বাক্ষরিত লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন আগে থেকেই আছে, যে আইনে নির্বাচন হয়ে আসছে। এই আইন নতুন করে করার কোনো দরকার নেই।

ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ ও পৌরসভা নির্বাচন সংক্রান্ত আইন একীভূত করার প্রক্রিয়ার বিরোধিতা করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, সরকারি দলের সুবিধা হয়, বেছে বেছে এমন বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে।

এই প্রস্তাবিত আইনে ফেরারি আসামির নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ রাখা হয়নি জানিয়ে তিনি বলেন, এর ফলে রাজনৈতিক মামলায় ফেরারি হয়ে অনেকেই প্রার্থী হতে পারবেন না।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে রাজনৈতিক মনোনয়নের বিরোধিতা করে নজরুল বলেন, এ কারণে রাজনৈতিক সহিংসতা ও বিদ্বেষ গ্রাম পর্যায়ে চলে গেছে। এই বিধান বাতিলের দাবি জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনের শেষ দিকে পৌরসভা নির্বাচন এগিয়ে আনার বিষয়ে সাংবাদিকরা প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, জনগণ যাতে অংশগ্রহণ করতে না পারে সে জন্যই করোনার দ্বিতীয় ধাপের ভয়াবহতার মধ্যে নির্বাচন করতে চায় সরকার।

আরও পড়ুন

  • এক্সক্লুসিভ এর আরও খবর