• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১ জুন, ২০২১
সর্বশেষ আপডেট : ১ জুন, ২০২১

বিয়ের মঞ্চেই কনের মৃত্যু, কনের মৃত দেহকে পাশের ঘরে রেখেই বিয়ে সম্পন্ন !

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের অনুষ্ঠান চলছে। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই হবে মালাবদল, সাত পাকে ঘোরার অনুষ্ঠান। চারপাশে হাস্যমুখ অতিথিদের সমাবেশ। নতুন জীবন শুরু করতে চলেছেন বর-কনে। সেই সুখের মুহূর্তের উপরে আচমকাই নেমে এল দুর্যোগের অন্ধকার। বিয়ের মঞ্চেই লুটিয়ে পড়লেন কনে। আর উঠলেন না। ডাক্তার এসে পরীক্ষা করে ঘোষণা করলেন মারা গিয়েছেন ওই তরুণী। এরপর ওই মঞ্চেই মৃতা তরুণীর বোনকে বিয়ে করলেন যুবক। উত্তরপ্রদেশের এটাওয়াতে ঘটেছে এই ঘটনাটি।

 

ঠিক কী হয়েছিল? জানা যাচ্ছে, বিয়ের অনুষ্ঠান চলাকালীন আচমকাই সংজ্ঞা হারিয়ে লুটিয়ে পড়েন কনে সুরভি। পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন বরবেশী মঙ্গেশ কুমার। তিনি ও আশপাশে উপস্থিত সকলেই হতভম্ব হয়ে যান। পরে ডাক্তার এসে জানান, গুরুতর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন সুরভি।

 

বিয়েবাড়িতে নেমে আসে শোকের ছায়া। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে সুরভির দাদা সৌরভ জানিয়েছেন, ‘‘আমরা বুঝে উঠতে পারছিলাম ন‌া এই পরিস্থিতিতে কী করব। দুই পরিবার একসঙ্গে বসেছিলাম। তখনও কেউ পরামর্শ দেয় আমার ছোটবোন নিশার সঙ্গেই বিয়ে হোক মঙ্গেশের। প্রস্তাবে দুই পরিবারই সম্মত হয়।’’ শেষ পর্যন্ত তাই হয়। সুরভির মৃতদেহ একটি ঘরে শুইয়ে রেখে বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। পরে বরযাত্রীরা চলে গেলে সুরভির দেহ নিয়ে শবযাত্রা বের হয় শ্মশানের উদ্দেশে।

 

সুরভির কাকা আজব সিং জানিয়েছেন, পরিস্থিতিটা কতটা কঠিন ছিল সকলের জন্য। তাঁর কথায়, ‘‘আমাদের পরিবারের পক্ষে সিদ্ধান্তটা নেওয়া কঠিন ছিল। এক মেয়ের মৃতদেহ একটি ঘরে শুইয়ে রেখে পাশের ঘরে বিয়ে সম্পন্ন হল অন্য মেয়ের। এমন মিশ্র অনুভূতির মুখোমুখি আগে কখনও হইনি। একদিনে সুরভির মৃত্যুর শোক, অন্যদিকে নিশার বিয়ের আনন্দ যেন একসঙ্গে মিলেমিশে গেল।’’

আরও পড়ুন