• ঢাকা
  • বুধবার, ২২শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৪ ডিসেম্বর, ২০২১
সর্বশেষ আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর, ২০২১

ঢাবির সূর্যসেন হলে শিক্ষার্থীকে নির্যাতন, অভিযুক্ত সেই সিফাতই

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মাস্টার দা সূর্যসেন হলের এক আবাসিক শিক্ষার্থীকে রাজনৈতিক কর্মসূচিতে না যাওয়ায় নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে সিফাত উল্লাহ নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী কাজী পরশ মিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরাসি ভাষা ও সংস্কৃতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে হলের ৩৫১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে যান সিফাত উল্লাহ এবং সেখানে তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করেন।

পরশ বলেন, ‘দুদিন আগে সিফাত আমাকে ছাত্রলীগের এক কর্মসূচিতে যাওয়ার জন্য বলেন কিন্তু আমার সে দিন পরীক্ষা থাকায় যেতে পারিনি।’

তিনি বলেন, ‘সোমবার আমি তাঁর কক্ষে গেলে তিনি আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করেন।’

পরশ জানান, তিনি হলের প্রাধ্যক্ষ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কাছে অনলাইনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, ‘আমি শুনেছি এ ঘটনা। তবে এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি।’

সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মকবুল হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘অভিযোগ তদন্তের জন্য জ্যৈষ্ঠ হাউস টিউটর অধ্যাপক আহমদ উল্লাহর নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

হলের প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. আব্দুল মোতালেব বলেন, ‘অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এ অভিযোগের বিষয়ে জানার জন্য সিফাতের সঙ্গে ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এর আগে ৮ নভেম্বর, উইমেন অ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজের ছাত্র সিফাত আরিফুল ইসলাম ও তরিকুল ইসলাম নামে আরও দুই ছাত্রকে হল থেকে বের করে দেয়ার জন্য নির্যাতন করে এবং তা না করলে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় বলেন জানা গেছে।

তবে এটি ‘ভুল বোঝাবুঝি’ ছিল অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেন ভুক্তভোগীরা। তবে এখানেই শেষ নয় সিফাতের নির্যাতনের কাহিনী!

২০১৮ সালের ৭ জুলাই অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের দুই শিক্ষার্থী রোকেয়া গাজী লিনা ও আসাদুজ্জামান প্রান্তকে নির্যাতনের দায়ে সিফাতকে ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

আরও পড়ুন