• ঢাকা
  • রবিবার, ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৮ ডিসেম্বর, ২০২১
সর্বশেষ আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর, ২০২১

নিউজিল্যান্ড সফর নিয়ে ২১ ডিসেম্বর সিদ্বান্ত নেয়া হবে : পাপন

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের চলমান সফরের বিষয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে ২১ ডিসেম্বর। সেদিন খেলোয়াড় এবং স্টাফদের আবারও কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হবে।

ক্রাইস্টচার্চে দলের স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথের করোনাভাইরাস পজিটিভ হবার পর বাংলাদেশ দলের কোয়ারেন্টাইন তিনদিন বাড়ানো হয়। বাংলাদেশ থেকে নিউজিল্যান্ড যাবার পথে টাইগার দলের কয়েকজন সদস্য একজন কোভিড-রোগীর সংস্পর্শে আসেন।
করোনাভাইরাসের কারণে নিউজিল্যান্ড সফর বাতিল করে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল দেশে ফিরতে পারে বলে গুঞ্জন ছিল। কিন্তু বিসিবি সভাপতি জানান, সফর স্থগিত করার কোন সুযোগ নেই কারণ বাংলাদেশ একটি কঠোর আন্তর্জাতিক সময় সূচির মধ্যে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে, যা আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ।

তবে বিসিবি সভাপতি এটিও জানান, এই পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে নিউজিল্যান্ডে যাওয়া ক্রিকেটাররা স্বস্তিতে নেই। আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে ক্রিকেটারদের। পরবর্তীতে নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবে।
আজ এক জরুরি বৈঠকের পর নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘গত অস্ট্রেলিয়া সিরিজের পর থেকে ক্রিকেটারা একটানা খেলার মধ্যে রয়েছে। এখন নিউজিল্যান্ড সফরে আছেন তারা। সেখান থেকে দেশে ফেরার ৪/৫ দিনের মধ্যে বিপিএল শুরুর সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। তাদের ২০২২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত একটানা ক্রিকেটের মধ্যে থাকতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা তাদের কোন বিরতি বা বিশ্রাম দিতে পারি না। খেলোয়াড়রা সবাই মানসিক এবং শারীরিকভাবে বিপর্যস্ত। কেউ কেউ সিরিজটি স্থগিত করতে বা দেশে ফিরে আসতে চেয়েছিলেন।’ তবে পাপন জানান, সফরের বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন তারা।

আগামী ২১ ডিসেম্বর কোভিড-১৯ টেস্টে বাংলাদেশ দলের কোন সদস্য পজিটিভ হলে কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ বাড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে। পাপন জানান, নিউজিল্যান্ডের সাথে দ্বিপক্ষীয় আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান করা হবে।

পাপন বলেন, ‘২১ তারিখের পর কোয়ারেন্টাইন বাড়ানো হলে আমরা তাদের (নিউজিল্যান্ড) বোর্ডের সাথে আলোচনা করবো, কি করা যায়। বাংলাদেশ সিরিজের এক সপ্তাহ পর তারা (নিউজিল্যান্ড) অস্ট্রেলিয়ায় যাচ্ছে। তাই তাদের হাতেও সময় নেই। আমরা দুই/তিন/চার দিনের জন্য শিডিউল পিছিয়ে দিতে পারি, তবে আমি এখন পর্যন্ত জানি না। একটি পরিষ্কার হতেআমাদের ২১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’

এক্ষেত্রে আরও সমস্যা রয়েছে। বাংলাদেশ দলের ফ্লাইটে একজন যাত্রীর শরীরে ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট থাকার কারণে বিষয়টি নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। আর এ কারণে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে পারেনি বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘পুরো বিষয়টি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের হাতে নেই। তাদের সরকার এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিষয়টি দেখছে। তবে তারা আমাদের সাধ্যমত সহযোগিতা করার চেষ্টা করছে। আমরা একে সাধুবাদ জানাই।

আরও পড়ুন

  • এক্সক্লুসিভ এর আরও খবর