বুধবার ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৮ মাঘ ১৪২৯

ছাত্রলীগের তিন কর্মীর বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগ নেতার
নিউজ ডেস্ক:
প্রকাশ: রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২২, ০৮:০৫ রাত | অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) তিন ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় শাহবাগ থানায় অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী এস এম জানে আলম জনি। তিনি একই সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের স্কুল ছাত্র বিষয়ক উপসম্পাদক। শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মল চত্বর এলাকায় এ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

অভিযোগপত্রে যে তিনজনের নাম উল্লেখ করা হয় তারা হলেন, পপুলেশন সাইন্স বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের মো. নূর উদ্দিন আহমেদ, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের ফজলে রাব্বি এবং একই সেশমের মুন্তাসির শুভ। তারা সবাই সার্জেন্ট জহুরুল হলের আবাসিক ছাত্র এবং হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রুবেল হোসেনের অনুসারী।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, নূর উদ্দিন, ফজলে রাব্বি, মুন্তাসির শুভসহ আরো ৮-১০ জন জনিকে মল চত্বর এলাকায় একা পেয়ে হামলা ও শারীরিক হেনস্তা করে টাকা-পয়সা ও গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র কেড়ে নেয়। এসময় তারা বলে, তুই নাকি বিশ্ববিদ্যালয়ের পোস্টেড,তরে কে নেতা বানাইছে সেটা আমি দেখতে চাই, এইসব বলে অনেক গালাগালি করেছে এবং হামলাকারীরা ভিকটিমের সাথে থাকা মোবাইল ফোন কেড়ে নিতে টানা হেছড়া করে, পরে তা নিতে না পারলেও, টাকা পয়সা ও হলের আইডি কার্ড ও ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের এটিএম কার্ড হাতিয়ে নিয়ে যায়। পরে জানে আলম জনির কয়েকজন বন্ধু এসে তাকে উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জানে আলম জনি বলেন, ‘গতকাল সন্ধায় আমাকে একা পেয়ে এই তিনজনসহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন আমাকে হেনস্তা করে এবং আমার মানিব্যাগ নিয়ে যায়। মানিব্যাগে ৫ হাজার টাকা, একটি এটিএম কার্ড ছিল। আমি তাদের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করেছি। এ ঘটনায় আমি মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছি। আশা করছি তারা দ্রুত আইনের আওতায় আসবে।’

তবে অভিযুক্ত তিনজনই ছিনতাইয়ের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তারা বলছেন, সিলেট জেলা ছাত্র সংগঠনকে কেন্দ্র করে তর্কাতর্কি হয়েছে, এর বাইরে কোনো কিছু হয়নি। বিষয়টি সমাধান না হলে মানহানীর হামলা করবেন বলে জানান।

অভিযুক্ত নূর উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘ছিনতাইয়ের বিষয়টি সম্পুর্ণ মিথ্যা। আমি সিলেট জালালাবাদ ছাত্র কল্যান সমিতির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছি। কিন্তু জানে আলম সংগঠনের প্যাডে নিজের নাম লিখে নিজেকে সাধারণ সম্পাদক দাবি করছেন এবং আমাদের ফেসবুক গ্রুপ থেকে আমাদের রিমোভ করে দিয়েছেন। সে বিষয়টি নিয়ে আমাদের মাঝে তর্কাতর্কি হয়েছে। আমাদের সিনিয়ররা এটা নিয়ে কথাও বলেছেন কিন্তু সকালে দেখি তিনি শাহবাগ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। আমরা এ ঘটনায় বিব্রত। আমাদের সিনিয়ররা এটা নিয়ে বসবেন, যদি সমাধান না হয় তাহলে আমরা মানহানীর মামলা করব।’

অভিযোগের বিষয়ে ফজলে রাব্বি বলেন, ‘আমার বন্ধু নূর উদ্দিনের ডাকে আমরা সেখানে গিয়েছিলাম। জালালাবাদ ছাত্র সংগঠন নিয়ে তাদের মাঝে তর্কাতর্কি হয়েছে দেখেছি। কিন্তু সেখানে হামলা কিংবা ছিনতাই কোনোটি হয়নি। সেখানে শত শত মানুষ ছিল, এমন জায়গায় ছিনতাই হওয়াটাই হাস্যকর। উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে আমাদের বিরুদ্ধে জিডি করেছেন তিনি। আমাদের কোনো প্রকার সম্পৃক্ততা নেই।’

একই বক্তব্য দিয়েছেন আরেক অভিযুক্ত মুন্তাসির শুভ। এ ঘটনায় মানহানীর মামলা করার কথা জানান তিনি।

« পূর্ববর্তী সংবাদ পরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ